কুড়িগ্রামে গুমের অভিযোগে মামলা, ১৭ মাস পর জীবিত উদ্ধার

0
116
কুড়িগ্রাম প্রতিনিধিঃ
খুন ও লাশ গুমের অভিযোগে ভাইয়ের দায়ের করা মামলার ১৭ মাস পর বোনকে আত্মগোপন অবস্থান থেকে আটক করেছে কুড়িগ্রাম সদর থানা পুলিশ ।
রবিবার  (২ অক্টোবর ) কুড়িগ্রাম ধরলা ব্রিজ এলাকা থেকে এসআই মাজেদুল ইসলাম এর নেতৃত্বে  নিখোঁজ মারিজা বেগম (৪০)কে আটক করা হয়।
পুলিশ জানায়, কুড়িগ্রাম সদর উপজেলার পৌরসভা এলাকার সওদাগর পাড়া  গ্রামের মো. মেছের আলী  নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে একটি মামলা দায়ের করেন। যে মামলায় বাদী মেছের আলী তার বোন মারিজা বেগমের স্বামী আলমগীরসহ ৩ জনকে নামধারী আসামি করেন। মামলার এজাহারে বাদী সন্দেহ পোষণ করে তার বোনকে মেরে ফেলে লাশ গুম করা হয়েছে।
এরপর মামলায় তদন্তে নেমে সদর থানা পুলিশ। দীর্ঘদিন তদন্তে ১৭ মাসের পর গত রবিবার ধরলা ব্রিজ এলাকা থেকে  কথিত গুম হয়ে যাওয়া মাজিরা বেগমকে আটক করা হয়।
সদর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) খান মোঃ শাহরিয়ার জানান, আটক ভিকটিম এতদিন আত্মগোপনে ছিলো বলে প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে।
তিনি আরো জানান, আটক ভিকটিমকে বিজ্ঞ আদালতে সোপর্দ করলে আদালত তাকে নিজ জিম্মায় যাওয়ার অনুমতি প্রদান করে ।